`বৃষ্টিতে ভিজে অফিসে ঢুকতেই আমাকে জড়িয়ে ধরে…’

ভারতের মর্ধপ্রদেশের এক স্টেশন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এবার মি-টুর অভিযোগ উঠেছে। তেমনই বিভিন্ন সময়ের একাধিক যৌন হেনস্থার শিকার অন্তত ৯ জন মহিলা সম্প্রতি সরব হয়েছেন।

সর্বভারতীয় নিউজ ওয়েবসাইটের দাবি, অল ইন্ডিয়া রেডিয়োর শুধুমাত্র শহদল অফিসেই ২০১৭ সালে ন’জন মহিলা কর্মী সেখানকার অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টরের রত্নাকর ভারতীর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলেছেন। তাঁদের কেউ ছিলেন অস্থায়ী ঘোষক, কেউ বা সাধারণ কর্মী।

 

এক অভিযোগকারিণী বলেন, ‘‘বৃষ্টি হচ্ছিল। আমার বাড়ি থেকে রেডিয়ো স্টেশন বেশ খানিকটা দূরে। অফিসের পথে আমি কিছুটা ভিজে গিয়েছিলাম। অফিসে পৌঁছে অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টরের ঘরে তাঁকে জানাতে যাই যে, আমি অফিসে এসেছি। এ কথা বলার পরই উনি একটা টাওয়েল নিয়ে এসে আমাকে জড়িয়ে ধরেন এবং অশোভন ভাবে আমাকে মুছিয়ে দিতে থাকেন।’’

অন্য এক মহিলা কর্মী বলেছেন, ‘‘একদিন রত্নাকর ভারতী সরাসরিই আমাকে বলেন, ম্যাডাম, আপনার সন্তান না হলে আমার বীর্যে মা হতে পারেন। তাতে আপনি সুখীও হবেন। আমি তাঁকে বলি, এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব। তখন উনি আমাকে শাসিয়ে বলেন, সব দিকে আমার হাত আছে, এখান থেকে দিল্লি পর্যন্ত। তাই আমি যা চাই তাই করতে পারি। কিন্তু তুমি আমাকে কিছুই করতে পারবে না। তুমি তোমারই সম্মান হারাবে, আমার কিছুই হবে না।’’

 

আরেক জনের দাবি, ‘‘আমাকে নানাভাবে নির্যাতন করতেন উনি। বলতেন, নাইট ডিউটি দিয়ে দেবেন। আমাকে অপহরণ করে এমন জায়গায় নিয়ে যাবেন, যে বুঝতেও পারব না। আমার বিয়ে করা নিয়েও প্রশ্ন তুলতেন। বলতেন, কি প্রমাণ আছে যে তুমি অবিবাহিত? আমাকে এসব বলার উনি কে? কেনই বা আমি উত্তর দেব।’’

অবশ্য শুধু শহদলই নয়, অন্য অনেক রাজ্যেও প্রসার ভারতীর পদস্থ কর্তাদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছে। হরিয়ানার কুরুক্ষেত্র, উত্তর প্রদেশের ওবরা, হিমাচল প্রদেশের ধর্মশালার মতো রেডিয়ো স্টেশন থেকেও একাধিক অভিযোগ সামনে এসেছে সম্প্রতি।

Updated: November 5, 2018 — 4:06 pm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Reviewever © 2018 Frontier Theme