বোর্ডের ছাড়পত্র ছাড়াই খালেদা জিয়াকে আদালতে আনা হয়েছে,অভিযোগ বিএনপি

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে হাসপাতাল থেকে আদালতে হাজির করা হয়েছে। মেডিকেল বোর্ডে যারা দায়িত্বে ছিলেন তারা তাকে ছাড়পত্র দেননি। অন্য একজনের মাধ্যমে ছাড়পত্র লেখানো হয়েছে।

১ মাস ২ দিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আজ বৃহস্পতিবার বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে অস্থায়ী আদালতে হাজির করা হয়।

নাইকো মামলায় অভিযোগ গঠনের বিষয়ে সেখানে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানি শেষে কারাগারে নেয়া হয়েছে খালেদা জিয়াকে।

ওই শুনানি শেষে আদালত থেকে বেরিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার রাজনৈতিকভাবে হয়রানি করার জন্য এ কাজগুলো করছে।

মেডিকেল বোর্ডের দায়িত্বপ্রাপ্ততা বলছেন, খালেদা জিয়াকে এ মুহূর্তে ছাড়া ঠিক হবে না।খালেদা জিয়ার মুক্তিও দাবি করেন বিএনপি মহাসচিব।

এদিকে ৩০ মিনিটের জন্য খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে আদালতে আজ আবেদন করেন মির্জা ফখরুল ইসলাম ও খালেদা জিয়ার

আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া। তাদের এ আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত বলেন, এটা জেলকোড অনুযায়ী যেতে হবে, আমাদের এখতিয়ারের মধ্যে নেই।

হাসপাতাল থেকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে খালেদা জিয়াকে

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল থেকে নাজিমুদ্দিন রোডের কারাগারে নেওয়া হয়েছে।

কারাগারে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতের অস্থায়ী এজলাসে খালেদা জিয়ার নাইকো মামলার শুনানি চলছে। তাকে এখন সেখানে হাজির করা হয়েছে বলে বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশন- দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল।

এ কারণে আজ সকাল থেকেই হাসপাতাল ও কারাগার এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

হাইকোর্টের নির্দেশে গত ৬ই অক্টোবর বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল।

এক মাস দুই দিন চিকিৎসা নেয়ার পর আজ তাকে কারাগারে ফিরিয়ে নেয়া হল।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে বলে জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের পরিচালক আবদুল্লাহ আল হারুন।

এখন থেকে হাসপাতালেই তার চিকিৎসা চলবে বলে জানান তিনি।

এদিকে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভি এক সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন, যে খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেয়ার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ছাড়পত্র দিতে বাধ্য করা হয়েছে।

গত ৩০ অক্টোবর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড পাঁচ বছর থেকে বাড়িয়ে ১০ বছর করেছে হাইকোর্ট।

এর আগে ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান এই মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছিলেন।

Updated: November 9, 2018 — 12:55 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Reviewever © 2018 Frontier Theme